Home
Published: 2017-04-24 22:41:44

নিউজ আগামীঃ

কুড়িগ্রামে চতুর্থ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বুকে লাথি মারার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। গতকাল সদর উপজেলার হলোখানা খয়েরউল্যাহপুর বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে অসুস্থ অবস্থায় সে জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে জানিয়েছে ঐ শিক্ষার্থীর পরিবার।

কুড়িগ্রামের সদর উপজেলার ভেরভেরি গ্রামের হলোখোনা খয়েরউল্যাহপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী নয়ন। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্বজনরা জানান, রোববার দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া তার বোনকে প্রশ্নের উত্তর বলে দিতে গেলে রাগান্বিত হয়ে শিক্ষক নাজমুল হক তার বুকে লাথি মারেন। এতে সে ছিটকে পার্শ্ববর্তী নারকেল গাছের সঙ্গে মাথায় আঘাত পায়। বাড়ি ফিরে আসার পর সে অসুস্থ হয়ে পরলে পরে তাকে রাত্রে জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নয়ন বলেন, গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে আমি মাথায় আঘাত পেয়েছি। পরে রাত্রে আমার বমি হয়। সহপাঠীরা  বলেন, 'স্যার বলেছিল ওখানে যেয়ে কাউকে বলে দিওনা। ও বলে দিয়েছে। এসময় স্যার ওর বুকে একটা লাথি মারছে।'

নয়নের বাবা বলেন, 'আমার ছেলের বুকে শিক্ষক লাথি মেরেছে। আমার ছেলে খুব অসুস্থ। ছেলে সুস্থ হলে আমি মামলা করবো।' এদিকে নয়নের শারীরিক অবস্থা এখন ভাল বলে জানিয়েছে কর্তব্যরত চিকিৎসক। তিনি বলেন, 'ও মাথায় আঘাত পেয়েছিল এর কারণে বমিও হয়েছে। সেবা অব্যাহত রয়েছে। সে এখন সুস্থের পর্যায়ে।'

এদিকে প্রধান শিক্ষকের দাবি ঘটনা সম্পর্কে তিনি কিছুই জানেন না। তবে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন অভিযুক্ত শিক্ষক।

 

নিউজ আগামী/স

ব্রেকিং নিউজঃ
Widget by:Baiozid khan