Home
Published: 2017-03-18 05:51:21

নিউজ আগামী:

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পূর্ণাঙ্গ ইনস্টিটিউট করার দাবিতে গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের মেয়েদের টানা কর্মসূচি পালনের মধ্যে এর বিপক্ষে মতামত জানিয়ে দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। তারা মেয়েদের কর্মসূচিকে জনদুর্ভোগ সৃষ্টির উপাদান হিসেবে দেখছে। এই কর্মসূচির কারণে আইনশৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে বলেও মনে করছে শিক্ষক সমিতি।

শনিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি মাকসুদ কামাল এবং সাধারণ সম্পাদক রহমতউল্লাহ সাম্প্রতিক কিছু ঘটনা নিয়ে একটি বিবৃতি দেন। এতে তারা গার্হস্থ্য অর্থনীতির মেয়েদের আন্দোলনের বিপক্ষে তাদের অবস্থান প্রকাশ করেন।

গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পূর্ণাঙ্গ ইনস্টিটিউট করার দাবিতে গত কয়েক দিন ধরেই নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। এই দাবির বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকশ শিক্ষার্থীও বিক্ষোভ করেছে ক্যাম্পাসে।

এই পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির মধ্যে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন, গার্হস্থ্য অর্থনীতির ছাত্রীদের দাবি ‍পূরণের বিষয়টি সরকারের হাতে নেই। এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিষয়। তারা যদি রাজি না থাকে তাহলে বিষয়টি নিয়ে তিনি কিছুই করতে পারবেন না।

শিক্ষামন্ত্রীর এমন বক্তব্যের দুই দিনের মাথায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতিও গার্হস্থ্য অর্থনীতির মেয়েদের দাবির বিপক্ষেই তাদের অবস্থানের জানান দিল। 

শিক্ষক সমিতির দুই নেতা বিবৃতিতে বলেন, ‘কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্তর্ভুক্তিকরণ ও ইনস্টিটিউটে রূপান্তর করার অজুহাতে রাস্তাঘাটে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে আন্দোলন প্রতি-আন্দোলন কর্মসূচির নামে যানজট ও জনদুর্ভোগ সৃষ্টিসহ একটি গোষ্ঠী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমুহে অস্থিরতা সৃষ্টির প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এতে যেমন শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে, তেমনি আইন শৃঙ্খলার অবনতিরও আশঙ্কা দেখা দিচ্ছে।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলে সিট দখলকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের কর্মীদের সঙ্গে সাধারণ শিক্ষার্থীদের উত্তেজনার প্রসঙ্গেও কথা বলেন দুই শিক্ষক নেতা। তারা বলেন, ‘আমরা লক্ষ্য করছি সাম্প্রতিককালে বিভিন্ন হলে সিট বণ্টনকে কেন্দ্র করে পরস্পরের প্রতি দোষারপ, শিক্ষার্থীদের মধ্যে উত্তেজনা এবং একদল উৎশৃঙ্খল ছাত্র ভর্তি শিক্ষক শিক্ষার্থী এবং সাংবাদিককে নাজেহাল করা হয়েছে।’

গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের মেয়েদের আন্দোলন আর রোকেয়া হলের ঘটনা উল্লেখ করে দুই শিক্ষক নেতা বলেন, ‘আমরা মনে করি, এহেন উশৃঙ্খল আচরণের অর্থ দ্বারা দেশের চলমান অগ্রগতিকে শ্লথ করে দেয়া।’

শিক্ষাক্ষেত্রে গত কয়েক বছরে ব্যাপক উন্নতি হয়েছে জানিয়ে এসব অর্জনকে আরও সংহত ও বেগবান করার লক্ষ্যে শিক্ষাঙ্গনে সৃস্থিশীল অবস্থা বজায় রাখতে এবং শিক্ষাবান্ধব পরিবেশ রক্ষার্থে সংশ্লিষ্ট সব মহলকে দায়িত্বশীল আচরণ করার আহ্বানও জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

নিউজ আগামী/রেজা

                                   

ব্রেকিং নিউজঃ
Widget by:Baiozid khan