Home
Published: 2017-03-02 07:25:46

নিউজ আগামী:

যমুনা নদীর উপর রেল সেতু নির্মাণের লক্ষ্যে জাপানি পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করেছে সরকার। প্রতিষ্ঠানটির নাম ওরিয়েন্টাল কনসালট্যান্টস গ্লোবাল কোম্পানি লিমিটেড। তারা অন্য কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যৌথভাবে পরামর্শকের কাজ করবে।

বৃহস্পতিবার রেলভবনে এই চুক্তি সই হয়। বাংলাদেশের পক্ষে সই করেন রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অবকাঠামো) কাজী মো. রফিকুল আলম এবং পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সই করেন রায়োহেই ইশি।

অনুষ্ঠানে রেলপথ মন্ত্রী মুজিবুল হক বলেন, যমুনা নদীর উপর নতুন রেলসেতু নির্মাণ খুবই জরুরি। এই সেতু নির্মিত হলে উত্তর ও পশ্চিম অঞ্চলসহ সমগ্র দেশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। আরও নতুন ট্রেন চালানো যাবে, অতিরিক্ত মালামাল পরিবহন করা সম্ভব হবে। ফলে সেতুটি দেশের অর্থনীতিতে বিরাট অবদান রাখবে।

মন্ত্রী বলেন, ‘সরকার সারা দেশের রেল যোগাযোগ উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে। নতুন নতুন লাইন নির্মাণ করা হচ্ছে। কোচ আনা হচ্ছে। সবকিছুর উদ্দেশ্য যাত্রীদের সেবা বাড়ানো। আগামী দুই বছরের মধ্যে রেলের অনেক প্রকল্প শেষ হলে যাত্রীদের আরও ভালো সেবা দেয়া সম্ভব হবে বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন।

‘বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতু নির্মাণ’ প্রকল্পটি গত ৬ ডিসেম্বরে অনুমোদন করেছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী সভা একনেক। এতে ব্যয় হবে মোট ৯৭৩৪ কোটি টাকা। প্রকল্পের আওতায় বঙ্গবন্ধু সেতুর ৩০০ মিটার উজানে ৪.৮ কিলোটিটার দীর্ঘ ডুয়েল গেজ ডাবল রেল সেতু নির্মিত হবে। সেই সঙ্গে সেতুর দুই প্রান্তে ‘বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব’ ও ‘বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম’ স্টেশন পর্যন্ত ডুয়েল গেজ ডাবল রেলওয়ে লাইন করা হবে এবং সিগন্যালিং ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে।

জাপানি সহায়তা সংস্থা জাইকার অর্থায়নে ব্রিজটি নির্মিত হবে। আর এই সেতু নির্মাণে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান পাবে মোট ৭৪৭.৫৮ কোটি টাকা।

চুক্তি সই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে জাইকার প্রধান প্রতিনিধি তাকাতোশি নিশিকাতা, জাপানি দুতাবাসের প্রথম সচিব তোশিউকি নগোচি, পরামর্শক প্রতষ্ঠানের কর্মকর্তা, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব ফিরোজ সালাহ উদ্দিন, রেলওয়ের মহাপরিচালক আমজাদ হোসেনসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজ আগামী/রেজা

ব্রেকিং নিউজঃ
Widget by:Baiozid khan